হোম অনলাইন আয় অনলাইন গেম অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ইন্টারনেট পরিচিতি টেলিকমিউনিকেশন ওয়ার্ডপ্রেস ফ্রিল্যান্সিং এফিলিয়েট মার্কেটিং গ্রাফিক্স ডিজাইন টিপস & ট্রিক্স ব্লগিং এসইও গুগল অ্যাডসেন্স গুগল নিউজ

কম দামে ভালো ফোন। ১৫০০০ টাকার মধ্যে বাংলাদেশে ভালো ফোন।

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা। আমরা অনেকেই নতুন মোবাইল ফোন কেনার আগে কম দামে ভালো ফোন খুঁজে থাকি। তো কম দাম বলতে এখানে ১২-১৫ হাজারের মধ্যে বোঝানো হয়েছে। তো এই বাজেটের মধ্যে যারা ফোন কিনতে চান। তারা এই আর্টিকেলটা অবশ্যই শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

আজকের বিষয় আমরা কম দামে ভালো ফোন কিভাবে চিনতে পারবো। আশা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন।

বন্ধুরা ডিজিটাল যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য সবাই নিজেকে পরিবর্তন করতেও শিখেছে।

ডিজিটাল যুগের সাথে নিজেকে খাপ খাওয়ানোর জন্য প্রতিনিয়ত জানতে হচ্ছে আমাদের আশেপাশের খবর এবং প্রয়োজনীয় তথ্য।

আর এজন্য তো প্রয়োজন ডিজিটাল ডিভাইস। যেটার নাম স্মার্ট ফোন।

বর্তমান বিশ্বে এমন লোক খুব কমই আছে। যারা স্মার্ট ফোন ব্যাবহার করে না। কিন্তু এমন লোক অনেকেই আছেন যারা স্মার্ট ফোন কিনতে জানেন না।

আর তারই সুযোগ নিয়ে থাকে বর্তমান ফোন কোম্পানি গুলো। যারা মোবাইলের দোকানে সেলসম্যানের নির্দিষ্ট পরিমাণে অর্থ প্রদান করে থাকে।

এর ফলে সেলস ম্যানরা ওই কোম্পানির ফোন বেশি বিক্রি করে। আর যাদের ফোন সম্পর্কে ধারণা কম।

তারা এই ধরনের ফোন গুলো কিনে থাকে। এবং পরবর্তীতে নিজেদের ভুল বুঝতে পারেন। কিন্তু তখন আর উপায় থাকেনা।

এজন্য আজকে আমি আপনাদেরকে দেখাবো ১৫০০০ টাকার মধ্যে কেমন ফোন কিনলে ভালো হবে।

কম দামে ভালো ফোন এর যে বৈশিষ্টগুলো থাকা উচিত।

ডিসপ্লে: বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে ৬.৪ ইঞ্চি হলে ভালো হয়। তবে এটা আপনার ব্যাক্তিগত ব্যাপার।

এটা কোনোভাবেই ফোনের ভালো খারাপ নির্দেশ করে না।

রেজুলেশন: এই প্রাইসে FHD রেজুলেশন হলে ভালো হয়। কিন্তু অন্য সব কিছু বিবেচনা করে HD+ হলেও কোনো সমস্যা নাই।

পিক্সেল ডেনসিটি: সর্বনিন্ম ২৬০ পিপিআই হওয়া উচিত। এর থেকে বেশি হতে পারে।

ক্যামেরা: ১২ মেগাপিক্সেলের নিচে ক্যামেরা এমন ফোন কেনা উচিত না। যদিও ক্যামেরা মেগাপিক্সেল বেশি হলেই পিকচার ভালো হয়না।

ভিডিও রেকর্ডের ক্ষেত্রে ১০৮০ পি এবং ৩৬০ এফপিএস দেখে কেনা উচিত।

র‌্যাম এবং রম: ফোনের দুইটি গুরুত্তপূর্ণ বিষয় হলো র‌্যাম এবং রম। এই বাজেট এর ফোনে সর্বনিন্ম র‌্যাম এবং রম হওয়া উচিত ৪ জিবি এবং ৬৪ জিবি।

ব্যাটারি: ফোন যে ব্র্যান্ডের হোক না কেনো ব্যাটারি ছাড়া ফোন অচল। এজন্য ব্যাটারি নূন্যতম 5000mAh হলে ভালো হয়। এবং বর্তমানে যেকোনো ফোনের সাথেই ফাস্ট চার্জিং সুবিধা যুক্ত চার্জার দেওয়া হয়। সেটা অবশ্যই নিশ্চিত করে ফোন ক্রয় করা উচিত।

প্রসেসর: একটি ফোন কেনার সময় তার সব ধরনের খুঁটিনাটি বিষয় গুলো ইন্টারনেট থেকে দেখা উচিত। এর মধ্যে প্রসেসর হলো গুরুত্তপূর্ণ একটি বিষয়।

প্রসেসর প্রতিনিয়ত আপডেট হতে থাকে। এজন্য আপনি যে সময় ফোন কিনবেন সেই সময়ের সবথেকে ভালো প্রসেসরটি দেখে তারপর ফোন কেনার সিদ্ধান্ত নিবেন।

তো বন্ধুরা আজ এ পর্যন্তই। আশাকরি এই পোষ্টটি আপনাদের উপকারে আসবে।

আপনাদের আশেপাশের মানুষজন যদি নতুন ফোন কেনার জন্য কম দামে ভালো ফোন খুঁজে থাকেন।

তাহলে এই আর্টিকেলটা তাদেরকে সাজেস্ট করতে পারেন।

তাহলে তাদের কাছে অবশ্যই এই পোষ্টটি শেয়ার করবেন। তাদেরও উপকারে আসতে পারে।

Leave a Reply