ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন যেভাবে। Simple rules for wordpress website backup.

ওয়েবসাইট ব্যাকআপ কি?

একটি ওয়েবসাইট ব্যাকআপ হলো ওয়েবসাইটের সমস্ত তথ্যের অনুলিপি।

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে এবং সেটা গ্রো করতে অনেক কাঠঘর পোড়াতে হয়। যেহেতু অনেক পরিশ্রম আর অর্থের বিনিময়ে একটি ওয়েবসাইট পরিচালনা করা হয়। এজন্য ওয়েবসাইট সুরক্ষিত রাখার জন্য বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপও নেওয়া লাগে।
তা না হলে দীর্ঘদিনের কষ্ট নিমিষেই বিফলে যেতে পারে। আর এই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গুলোর একটি হলো ওয়েবসাইট এর ব্যাকআপ নেওয়া।

বর্তমান সময়ে হ্যাকাররা সবসময় বিভিন্ন ধরনের ফাঁদ পেতে বসে থাকে। ওয়েবসাইট হ্যাক করার জন্য। শুধুমাত্র হ্যাকিং সমস্যার জন্যই যে ব্যাকআপ নিবেন, সেটা কিন্তু না। আপনার নিজের কারণেও আপনার ওয়েবসাইটের অনেক ত্রুটি ঘটতে পারে। এছাড়া হোস্টিং সার্ভার চেঞ্জ, ডোমেইন চেঞ্জ ইত্যাদি বিভিন্ন কারণে ব্যাকআপ এর বিকল্প নেই।

ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নেওয়ার সহজ নিয়ম।

এজন্য ওয়ার্ডপ্রেস ইউজাদারদের ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নেওয়ার জন্য সহজ একটি ট্রিকস দেখানো হলো –

যে সাইটের ব্যাকআপ নিবেন। সেটা লগইন করুন।
ইনস্টল নিউ প্লাগইন এ যান। এখানে wpvivid লিখে সার্চ করুন। প্রথম প্লাগইনটি ইন্সটল করুন। চিনতে না পারলে ছবিতে দেওয়া নির্দেশনা অনুসরণ করুন।

প্লাগইনটি ইনস্টল করা হলে একটিভেট করুন। এরপর wpvivid প্লাগইনটি ওপেন করুন এবং Backup & Restore মেনুতে ক্লিক করুন।

গাঢ় নীল বাটনে লেখা Backup Now এর উপর ক্লিক করুন। তবে বাটনটিতে ক্লিক করার আগে Database+Files এবং Save backup to local এই দুটি অপশনে টিক চিহ্ন আছে কিনা দেখে নিন। এই অপশন সিলেক্ট করে ব্যাকআপ বাটনটিতে ক্লিক করুন। সাথে সাথে আপনার ওয়েবসাইটের সম্পূর্ণ ব্যাকআপ তৈরির কাজ শুরু হবে।

ব্যাকআপ তৈরি কমপ্লিট হলে ব্যাকআপ ফাইল ডাউনলোড এবং রিস্টোর করার অপশন দেখতে পাবেন। এবার আপনি ব্যাকআপ ডাউনলোড করে নিন।

এখন আপনি এই ব্যাকআপ ফাইলটি গুগল ড্রাইভে অথবা অন্য যেকোনো ড্রাইভে আপলোড করে রাখতে পারেন।

পরবর্তীতে ওয়েবসাইটে যেকোনো সমস্যা দেখা দিলে আপলোড করার জন্য ফাইলটি ডাউনলোড করুন। এবং wpvivid প্লাগইনটি ওপেন করুন। Backup & Restore এই মেনুতে প্রবেশ করুন। নিচের থেকে upload অপশনে ক্লিক করুন।

ফাইলটি সিলেক্ট করে আপলোড করুন। এরপর আপলোডকৃত ফাইলটি নিচে লিস্ট আকারে দেখতে পাবেন। এখান থেকে restore এর উপর ক্লিক করুন।
এবং আবার restore এ ক্লিক করে কনফার্ম করুন। এরপর ওয়েবসাইটের ডাটা restore হলে আপনাকে বোঝানোর জন্য একটি নোটিফিকেশন দেখানো হবে।

তো বন্ধুরা এভাবে খুব সহজেই আপনি আপনার ওয়েবসাইটের ব্যাকআপ নিতে পারবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।